বৃহস্পতিবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২১, ০৭:২২ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ
শিরোনামঃ
কলাপাড়ায় বৃদ্ধ মা,বাবাকে পিটিয়ে জখম করেছে পাষন্ড ছেলে কুয়াকাটা বিকল্প সড়ক বেহাল দশা, ঝুঁকি নিয়ে চলছে পর্যটকবাহী যানবাহন কলাপাড়ায় সালিশ বৈঠকে দু’পক্ষের  সংঘর্ষ তদন্ত কমিটি গঠন ছাত্রলীগ নেতার বিরুদ্ধে শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগ ধান কুড়ানি শিশু-কিশোররা খুঁজে  বেড়াচ্ছে ইঁদুরের গর্ত কলাপাড়ায় তিন ইউপি নির্বাচনে এক নারীসহ ১৬ জন চেয়ারম্যান প্রার্থীর মনোনয়ন পত্র দাখিল কলাপাড়ায় খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তি ও চিকিৎসার দাবিতে বিক্ষোভ সমাবেশ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ‘গ্রাম হবে শহর’ এই স্বপ্ন বাস্তবায়নের অগ্রযাত্রায় নেতৃত্ব দিচ্ছেন: যুবলীগ নেতা সোহাগ কলাপাড়ায় তৃণমূলের ভোটে শীর্ষে থাকা চেয়ারম্যান প্রার্থীর পক্ষে সংবাদ সম্মেলন কুয়াকাটায় কাল শুরু শত বছরের ঐতিহ্যের রাস পূজা উৎসব
নোটিশঃ
চট্টগ্রাম বিভাগে বিভিন্ন জেলায় প্রতিনিধি আবশ্যক। যারা ইচ্ছুক, তারা আমাদের নিউজ পোর্টালে যোগাযোগ করবেন। যোগাযোগ 01715247336.

লুটের অভয়ারণ্যে পাংশা সরকারি কলেজ

নিজস্ব প্রতিনিধি / ১৫৬ শেয়ার হয়েছে
নিউজ আপঃ বৃহস্পতিবার, ১ এপ্রিল, ২০২১, ১২:০০ অপরাহ্ন

রাজবাড়ীর পাংশা সরকারি কলেজে দুর্নীতি ও লুটপাটের চক্র প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। একশ্রেণির শিক্ষক ও পরিচালনা পর্ষদের সদস্য গড়ে তুলেছেন এই চক্র। প্রতিষ্ঠানের শিক্ষা কার্যক্রমের চেয়ে আর্থিক দিকে বেশি নজর তাদের। কোথাও উন্নয়ন কর্মকাণ্ডের আড়ালে আবার কোথাও অনিয়মের মাধ্যমে লুট হচ্ছে কলেজের লক্ষ টাকা ও সম্পদ।
কলেজের আয়ন-ব্যয়ন কর্মকর্তা হওয়ায় সভাপতি বা পর্ষদের অবৈধ ও অন্যায় নির্দেশ বাস্তবায়ন করতে গিয়ে গত ২০১৯ সালে আইনগতভাবে ফেঁসে গিয়ে ছিলেন কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ আতাউল হক খান। আর কোনো কারণে প্রতিবাদ করলে চাকরিচ্যুত হওয়ার পাশাপাশি অপমান-অপদস্থ হতে হচ্ছে কলেজের সাধারণ শিক্ষকদের। এমন পরিস্থিতিতে উভয় সংকটে আছেন সাধারণ শিক্ষকরা। অবশ্য কমিটির লোকজন অধ্যক্ষ ও সাধারণ শিক্ষকদের ব্যবহার করে নানা অনিয়ম-দুর্নীতিতে লিপ্ত হওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে।
এব্যাপারে একটি অনুসন্ধান চালানো হলে দেখা গেছে, পাংশা সরকারি কলেজের পরিচালনা কমিটির দুর্নীতিবাজ সভাপতি ও সদস্যরা নানা রকম উন্নয়ন, কেনাকাটার কাজকে প্রাধান্য দেন। বিপরীতে শিক্ষার মান কিংবা শিক্ষার্থীদের সমস্যার প্রতি তাদের নজর দিতে দেখা যায় খুব কম। বরং শিক্ষার্থীদের টিউশন ফি বাবদ আদায় করা অর্থ অযথা বৈঠক করে সম্মানী গ্রহণসহ নানাভাবে লুটপাটের অভিযোগ উঠছে কলেজের পরিচালনা পর্ষদের দায়িত্বে থাকা শরিফুল মোর্শেদ রঞ্জুর বিরুদ্ধে। পাশাপাশি প্রতিষ্ঠানে দলাদলি করে শিক্ষার পরিবেশ নষ্ট, শিক্ষক-কর্মচারী-অভিভাবকদের সঙ্গে দুর্ব্যবহারের ঘটনা ঘটছে শরিফুল মোর্শেদ রঞ্জু ও তার ভাই কলেজের সাবেক ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ শফিকুল মোর্শেদ আরুজের মাধ্যমে।
অনুসন্ধানে পাওয়া তথ্য চিত্রে দেখা যায় সম্প্রতি গত ৮ মার্চ থেকে ২৮ মার্চ পর্যন্ত প্রায় বিশ লক্ষ টাকার অধিক বিভিন্ন ক্ষাতে হিসেব দেখিয়ে কলেজের ফান্ড থেকে উত্তোলন করা হয়েছে। এছাড়াও গত ৮ মার্চ কলেজের নতুন ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ হিসেবে আব্দুল খালেকের দায়িত্বভার গ্রহণের পর কলেজের হিসাব বিভাগ থেকে আর্থিক হিসাব সংক্রান্ত বিষয় লিপিবদ্ধকৃত খাতা হারিয়ে যাওয়ার ঘটনাও ঘটেছে। নিজেদের দুর্নীতি ঢাকতে ব্যক্তিগত ভাবে করেছে অডিট।
কলেজের কয়েকজন সাধারণ শিক্ষক জানান, গত ২৬ মার্চ কলেজের ৫৭ জন শিক্ষককে কলেজ ফান্ড থেকে উচ্চ মাধ্যমিকের টাকা দেওয়া হয়। কিন্তু সেক্ষেত্রে তারা ৭ হাজার টাকা উল্লেখিত কাগজে স্বাক্ষর করে। কিন্তু তাদের প্রদান করা হয় ৫ হাজার টাকা। বাকি ২ হাজার টাকার ব্যাপারে জানতে চাইলে ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ আব্দুল খালেক শিক্ষকদের বলেন, পূর্বের অধ্যক্ষ আতাউল হক খানকে কলেজ থেকে তাড়াতে যে অর্থ ব্যয় করা হয়েছিল তা এখান থেকে কর্তন করা হয়েছে। এই অজুহাতে প্রায় ১লক্ষ ১৪ হাজার টাকা লোপাট হয়েছে শুধু ২৬ মার্চ।


এই বিভাগের আরও খবর....

Address

87 Middle Rajashon, Savar,Dhaka-1340

+8802-7746644, +8801774945450

EMAIL newsalltime27@gmail.com

এক ক্লিকে বিভাগের খবর