মঙ্গলবার, ০৪ অক্টোবর ২০২২, ১০:০২ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ
শিরোনামঃ
রাজশাহীতে জঙ্গি হামলার আশঙ্কা নেই পুজামন্ডপে – রিয়াজ শাহরিয়ার জয়পুরহাটের কালাইয়ে  টেকসইকরণের প্রকল্পে রাস্তার কাজ হচ্ছে নিম্নমানের ইট দিয়ে বাঘায় ১২১ পিস ইয়াবাসহ একজন আটক রাজবাড়ীতে পৌরসভার কাউন্সিলর অস্ত্র ও গুলিসহ আটক বাংলাদেশ রেলওয়েতে অপ্রাপ্তবয়স্ক শিশু স্টাফ নিয়োগ স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের পর গলাকেটে হত্যা: প্রাইভেট শিক্ষকের তিনদিনের রিমান্ড টঙ্গীতে মালবাহী ট্রেনের বগি লাইনচ্যুত পাংশায় পুলিশের অভিযানে আগ্নেয়াস্ত্র সহ আটক ৪ যুবক রাজবাড়ী জেলা পরিষদ নির্বাচনে প্রতীক বরাদ্দ, আ’লীগের প্রার্থী পেলেন তালগাছ সোনাইমুড়ী থানা পুলিশ কর্তৃক অভিযান পরিচালনা করে ৯০ বোতল ফেন্সিডিল সহ এক মাদক ব্যবসায়ী আটক
নোটিশঃ
দেশব্যাপি জেলা ও উপজেলা প্রতিনিধি আবশ্যক। নুন্যতম শিক্ষাগত যোগ্যতা এইচ এস সি/ সমমান পাস। যোগাযোগঃ 01715247336

নওগাঁর ধামইরহাটে পাতা বিক্রি করে সংসার চালায় মুক্তিযোদ্ধা “মতিবুল’

প্রতিবেদকের নাম / ২৮৫ বার দেখা হয়েছে
নিউজ আপঃ শনিবার, ১৯ জানুয়ারী, ২০১৯, ৮:২৩ পূর্বাহ্ন

সোনাই নিউজ, নওগাঁ: নওগাঁর ধামইরহাট উপজেলায় আলতাদিঘী জাতীয় উদ্যানে গাছের খড়পাতা বিক্রি করে জীবিকা নির্বাহ করছেন জোতমাহমুমপুর (আলতাদিঘী) গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা মতিবুল ইসলাম (৭০)।
এমনকি বনবিভাগের খাস জমিতে স্ত্রীসহ দুই মেয়ে ও এক ছেলেকে নিয়ে বসবাস করছেন ভূমিহীন এই মুক্তিযোদ্ধা। মতিবুল ইসলাম জানান, প্রতিদিন শালবনে ও দিঘীর পাড়ে গাছের পাতা জড়ো করে বস্তায় ভরে রাখে। সকাল বেলায় নিজের ব্যবহৃত ভ্যানে করে তা প্রতি বস্তা ২০ টাকা দরে বিক্রি করে। আর এসব কাজে স্ত্রী তাকে সহযোগিতা করে। ধামইরহাট থানার মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার আব্দুর রউফ বলেন, মতিবুল প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধা। যুদ্ধে আমার সঙ্গে সে সক্রিয়ভাবে অংশ গ্রহণ করেছে। কিন্তু যথাযথ প্রক্রিয়ায় আবেদন না করায় সে ভাতা হতে বঞ্চিত আছে। সে (বিএলএফ) মুজিব বাহিনীর সদস্য ছিলেন।
মুক্তিযোদ্ধা মতিবুল ইসলাম বলেন, আমি পাতা বেচা-কেনা করে দিনযাপন করি। বনবিভাগের খাস জমিতে দুই মেয়ে ও এক ছেলে নিয়ে মাথা গুজে আছি। মুক্তিযুদ্ধে ওস্তাদ জাফরের নিকট শিলিগুড়ি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে আমিসহ মুক্তিযোদ্ধা আজগর, রফিক সোলেমান অনেকেই প্রশিক্ষণ গ্রহণ করি। মতিবুল আরও বলেন, মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণের কাগজপত্র আমার বৃদ্ধা মাতা হারায়। এ জন্য যথাযথ প্রক্রিয়ায় আবেদন করতে পারিনি। কাগজগুলো খোঁজার চেষ্টা করছি।
প্রতিদিন পাতা বিক্রি করে ভূমিহীন এই মুক্তিযোদ্ধার যা আয় হয় সেই অর্থটুকু দিয়েই সন্তানের পড়ালেখার খরচসহ অর্ধাহারে-অনাহারে মানবেতর দিন যাপন করছেন। তবে মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে তালিকাভুক্তি ও সকল সুবিধা প্রদানের জন্য সংশ্লিষ্ট মুক্তিযোদ্ধা মন্ত্রণালয় ও প্রধানমন্ত্রীর নিকট আকুল আবেদন জানান।


এই বিভাগের আরও খবর....
এক ক্লিকে বিভাগের খবর