শুক্রবার, ২৭ মে ২০২২, ০৩:০১ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
শিরোনামঃ
আটঘরিয়ায় শেখ হাসিনারকে নিয়ে কটুক্তি করায় ছাত্রলীগের বিক্ষোভ নীলফামারী সদর উপজেলা নারী উন্নয়ন ফোরামের কমিটি গঠন কুড়িগ্রামে কোভিড-১৯ প্রতিরোধ প্রকল্পের অবহিতকরণ সভা গোদাগাড়ীতে স্থানীয়দের সাথে প্রকল্প সমাপনী সেমিনার সভা গোদাগাড়ীতে প্রযুক্তির মাধ্যমে ফসল উৎপাদন বাজারজাতকরণে কৃষক প্রশিক্ষণ কর্মশালা সরাইলে অরুয়াইল বাজারের রাস্তার মাঝখানে বিদ্যুতের খুঁটি সাঁথিয়ায় ব্যানার নেওয়ার বিষয়ে ইউএনও’র সংবাদ সম্মেলন শ্রীমঙ্গলে অতিরিক্ত দামে আটা,ময়দা ও তেল বিক্রি, ৫ প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা শিবগঞ্জে নিসচার সচেতনতামূলক আলোচনা সভা ও পুরস্বার বিতরণ সাঁথিয়ায় ট্রাক চাপায় যুবক নিহত
নোটিশঃ
দেশব্যাপি জেলা ও উপজেলা প্রতিনিধি আবশ্যক। নুন্যতম শিক্ষাগত যোগ্যতা এইচ এস সি/ সমমান পাস। যোগাযোগঃ 01715247336

চবি ছাত্রলীগের অনশন ও বিক্ষোভ, প্রধান ফটকে তালা

চবি প্রতিনিধি / ৪৮ বার দেখা হয়েছে
নিউজ আপঃ বৃহস্পতিবার, ১৪ এপ্রিল, ২০২২, ২:৫০ অপরাহ্ন

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের শাখা ছাত্রলীগের সিএফসি গ্রুপের কর্মীরা প্রধান ফটক তালা মেরে অনশন ও বিক্ষোভে বসেছে।

গ্রুপটির প্রধান বিশ্ববিদ্যালয়ের শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি রেজাউল হক রুবেল।সিএনজি চালক কতৃক তাদের এক কর্মী মারধরের শিকার হওয়ায় তারা এই ঘোষণা দেয়। পরে ৭টার দিকে ছাত্রলীগের গ্রুপ বিজয়, বাংলার মুখ ও ভিএক্স গ্রুপ বিক্ষোভ শুরু করে।

বৃহস্পতিবার (১৪ এপ্রিল) বিকেল ৫টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের ১ নম্বর রেলক্রসিং এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা জানান, সমাজতত্ত্ব বিভাগের ১৮-১৯ সেশনের শিক্ষার্থী আরাফাত হোসেন মোটরসাইকেল নিয়ে ১ নম্বর রেলক্রসিং যায়।

এসময় এক সিএনজির সঙ্গে আরাফাতের মোটরসাইকেলের ধাক্কা লাগে। ওই চালককে সাবধানে সিএনজি চালাতে বললে চালককের সঙ্গে আরাফাতের কথা-কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে সিএনজি চালক আরাফাতকে মারধর করে।

এ ঘটনার প্রতিবাদে বিকেল ৫টার দিকে চবির জিরো পয়েন্ট ফটকে তালা দেন ছাত্রলীগের উপ-গ্রুপ সিএফসির কর্মীরা।

এসময় রেলক্রসিং এলাকা থেকে একটি সিএনজি জব্দ করে বিশ্ববিদ্যালয়ে নিয়ে আসে ছাত্রলীগ কর্মীরা। পরে রেলক্রসিংয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের একাধিক ছাত্রকে মারধর ও এক ছাত্রের মোটরসাইকেল ভাঙচুর করে সিএনজি চালকরা।

ছাত্রলীগ নেতা সাদাফ খান বলেন, ‘সিএনজি অটোরিকশার চালকরা প্রায় সময়ে ছাত্রদের মারধর করছে। প্রশাসন নির্বিকার। বিশ্ববিদ্যালয়ের মত একটা জায়গায় সিএনজি চালকদের দ্বারা ছাত্রদের মারধর লজ্জাজনক। অবিলম্বে দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা না নেয়া পর্যন্ত আমরা প্রধান ফটক অবরোধ করে রাখবো।’

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর (ভারপ্রাপ্ত) ড. শহিদুল ইসলাম বলেন, ‘বিষয়টি আমরা সমাধানে চেষ্টা করছি।’ প্রসঙ্গত, গত ১১ এপ্রিল সিএনজির চালকরা চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই ছাত্রকে মারধর করে।


এই বিভাগের আরও খবর....

Google Sponsored Ads

এক ক্লিকে বিভাগের খবর