মঙ্গলবার, ১৬ অগাস্ট ২০২২, ১২:৩১ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ
শিরোনামঃ
সরেরহাট কল্যানী শিশু সদনে অনিয়ম দূর্নীতির তথ্য প্রকাশ করায় দৈনিক ‘নাগরিক ভাবনা’র বিরুদ্ধে অভিযোগ পাংশায় বাস-ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে ট্রাক চালক নিহত বৃদ্ধা মহিলার অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে নোটিশ জারি আশুলিয়ার জামগড়া এলাকায় ঝগড়া থামাতে গিয়ে স্ব-পরিবারে হামলার শিকার পাংশায় গুরুত্বপূর্ণ সড়কে শিক্ষার্থী ও পথচারীদের দুর্ভোগ ইউএনও আম্বিয়া সুলতানা অসহায় বৃদ্ধাকে বুকে জড়িয়ে ধরলেন, রাসিকের ১৩, ১৪ ও ১৯ নং ওয়ার্ড তারুণ্যের ছোঁয়ায় উজ্জীবিত এস এল এ মানবাধিকার সংস্থার ঈদ পুনর্মিলনী ২০২২ বাড়িয়াকান্দির বহরপুরে আগুনে পুড়ে কোটি টাকার সম্পদ ধ্বংস। সরাসরি ভোটে কাদিরপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচন
নোটিশঃ
দেশব্যাপি জেলা ও উপজেলা প্রতিনিধি আবশ্যক। নুন্যতম শিক্ষাগত যোগ্যতা এইচ এস সি/ সমমান পাস। যোগাযোগঃ 01715247336

২৫ বছরেও পার্বত্য চুক্তি বাস্তবায়িত হয়নি : সন্তু লারমা

রাঙ্গামাটি প্রতিনিধি / ৪৩ বার দেখা হয়েছে
নিউজ আপঃ রবিবার, ১০ এপ্রিল, ২০২২, ১০:৪৩ পূর্বাহ্ন

পাহাড়ে জুম্ম জাতি গোষ্ঠির নিরাপদ জীবন ও সংস্কৃতি কৃষ্টি রক্ষায় পার্বত্য চট্টগ্রাম চুক্তি স্বাক্ষরিত হলেও ২৫ বছরেও পার্বত্য চুক্তি বাস্তবায়িত হয়নি। নানাবিধ প্রতিকুল পরিবেশে পার্বত্য অঞ্চলের জুম্ম জাতিগোষ্ঠিকে অসস্থিকর জীবন অতিবাহিত করতে হচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন পার্বত্য চট্টগ্রাম আঞ্চলিক পরিষদের চেয়ারম্যান জ্যোতিরিন্দ্র বোধিপ্রিয় লারমা ওরফে সন্তু লারমা।

তিনি রবিবার (১০ এপ্রিল) সকালে রাঙ্গামাটিতে পাহাড়ী আদিবাসীদের ঐতিহ্যবাহী বিজু, সাংগ্রাই, বৈসুক, বিহু, বিষু ও সাংক্রান উৎসবে র‌্যালী পূর্ব সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

রাঙ্গামাটি পৌরসভা প্রাঙ্গণে পাহাড়ী আদিবাসীদের ঐতিহ্যবাহী বিজু, সাংগ্রাই, বৈসুক, বিহু, বিষু ও সাংক্রান উৎসব উদযাপন পরিষদের সভাপতি প্রতিকৃতি রঞ্জন চাকমার সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অংসুইপ্রু চৌধুরী।

অন্যান্যদের মধ্যে, রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ সদস্য ঝর্ণা খীসা, বাংলাদেশ হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রিষ্টান পরিষদের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক পঞ্চানন ভট্টাচার্য্যসহ অন্যান্য জাতিগোষ্ঠির নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

সমাবেশ সন্তু লারমা আরো বলেন, পাহাড়ের বসবাসরত ১৫টি জাতিগোষ্ঠির মানুষ তাদের নিজস্ব ভাষা, কৃষ্টি ও সংস্কৃতি নিয়ে স্বাচ্ছান্দে জীবন ধারণ করতে চায়। কিন্তু পার্বত্য চুক্তির অনেক বিষয় বাস্তবায়ন করা হলেও চুক্তির মৌলিক বিষয়গুলো এখনো পর্যন্ত অবাস্তবায়িত হয়ে আছে।

এতে করে আদিবাসী মানুষ বিজু-সাংগ্রাই-বৈসুক-বিহু-সাংক্রান ভালভাবে ও নিরাপদে উদযাপন করতে পারছে না। তাই সরকার খুব দ্রুত চুক্তির গুরুত্বপূর্ন মৌলিক বিষয়গুলো বাস্তবায়নে দ্রুত উদ্যোগ গ্রহনসহ এই উৎসবের মধ্যদিয়ে পুরাতন বছরের সমস্ত গ্লানিকে ভূলে গিয়ে নতুন বছরের নতুন উদ্যোমে এবং সম্পদায়িক সম্প্রীতি বজায় রেখে দেশকে আরো উন্নয়নের এগিয়ে নেওয়ার আহ্বান জানান।

এর আগে পৌর প্রাঙ্গণে বেলুন উড়িয়ে উৎসবের সুচনা করেন, পার্বত্য চট্টগ্রাম আঞ্চলিক পরিষদের চেয়ারম্যান জ্যোতিরিন্দ্র বোধিপ্রিয় লারমা ওরফে সন্তু লারমা ও রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অংসুইপ্রু চৌধুরী।

পরে উদ্বোধনী অনুষ্ঠান শেষে, চাকমা, ত্রিপুরা, মারমা, তংচঙ্গ্যা, পাংখোয়া, অহমিয়া, ক্ষুদ্র জাতিগোষ্ঠিসহ সম্প্রদায়ের নারী পুরুষের অংশগ্রহনে পৌর প্রাঙ্গণ থেকে বের করা হয় বর্ণাঢ্য র‌্যালী। র‌্যালিটি শহরের প্রধান প্রদক্ষিণ করে শিল্পকলা একাডেমীতে গিয়ে শেষ হয়।


এই বিভাগের আরও খবর....
এক ক্লিকে বিভাগের খবর