রবিবার, ২৯ মে ২০২২, ০২:১২ পূর্বাহ্ন
নোটিশঃ
দেশব্যাপি জেলা ও উপজেলা প্রতিনিধি আবশ্যক। নুন্যতম শিক্ষাগত যোগ্যতা এইচ এস সি/ সমমান পাস। যোগাযোগঃ 01715247336

যৌতুকের টাকার জন্য মাথা ন্যারা করে দিলেন স্বামী !

প্রতিবেদকের নাম / ৮৮ বার দেখা হয়েছে
নিউজ আপঃ শুক্রবার, ৮ এপ্রিল, ২০২২, ৯:০৪ পূর্বাহ্ন

যৌতুকের টাকা না পেয়ে লালমনিরহাটের আদিতমারী উপজেলার নামুরী এলাকায় স্ত্রীর মাথা ন্যারা করে দিলেন মাদকাসক্ত স্বামী মমিনুল ইসলাম(২৫)। এ ঘটনায় নির্যাতনের শিকার গৃহবধূর বাবা থানায় অভিযোগ করলে পুলিশ মাদকাসক্ত স্বামীকে গ্রেফতার করে।

বৃহস্পতিবার (৭ এপ্রিল) রাত ৯ টার দিকে নির্যাতনের শিকার গৃহবধূর বাবা নুরুজ্জামান বাদী হয়ে আদিতমারী থানার অভিযোগ দায়ের করার পর পরই অভিযান চালিয়ে মাদকাসক্ত মমিনুলকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

গ্রেফতারকৃত মমিনুল জেলার আদিতমারী উপজেলার নামুরী দোলাপাড়া এলাকার মোকতার আলীর ছেলে।

জানা যায়, চার বছর পূর্বে পারিবারিক ভবে বিয়ে হয় মমিনুল ও নুরী দম্পতির।বিয়ের পর থেকেই স্বামীর নির্যাতনের শিকার হন গৃহবধূ নুরী।সংসারে সূখ ফিরবে বলে আইনের আশ্রয় নেন নি তিনি।তবে মাদকাসক্ত মমিনুলের নির্যাতন দিনদিন বাড়তে থাকে। প্রতিবেশীদের সাথে কথা বলা ও নেশার প্রতিবাদ করা পছন্দ ছিলো না স্বামী মমিনুলের।তাছাড়া নেশার জন্য টাকা প্রয়োজন হলেই যৌতুকের টাকা আনতে চাপ দিতে থাকেন স্ত্রীকে। স্ত্রী নুরী তা না আনায় গত চার দিন আগে তাকে অমানবিক নির্যাতন ও মাথার চুল ন্যারা করে দেয় সে।মাথা ন্যারা করার বিষয়টি নুরী যেন তার বাবার বড়ির কাউকে জানতে না পারে সেজন্য মোবাইল ফোনটিও বিক্রি করে দেওয়া হয়।নির্যাতনের শিকার গৃহবধূ কৌশলে বৃহস্পতিবার তার বাবাকে নির্যাতন ও মাথা ন্যারা করার বিষয়টি জানালে তিনি আদিতমারি থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করলে পুলিশ মেয়েটিকে উদ্ধার করে ও মাদকাসক্ত মমিনুলকে আটক করে।

নির্যাতনের শিকার গৃহবধূ নুরী জানায়, বিয়ের পরেই জানতে পারেন তার স্বামী মাদকাসক্ত। এ কারনে প্রতিদিন নেশা করে বাড়িতে এলেই কারনে অকারনে তাকে নির্যাতন করা হতো। তাকে বাড়ি থেকে বাহির হতে দিতো না এমনকি কারও সাথে কথা বললেই তাকে সন্দেহ করা হতো। বিয়ের তিন বছর পেরিয়ে গেলেও তার কোন পরিবর্তন হয়নি। নুরী বলেন,প্রায়দিন তার নেশার টাকার প্রয়োজন হলে সে আমাকে আমার বাবার বাড়ি থেকে টাকা নিয়ে আসতে বলতো। আমি বাবা বাড়ি থেকে টাকা আনতে অস্বীকার করলে চারদিন আগে আমাকে বেদম মারপিট করে মাথা ন্যাড়া করে দেয় এবং ঘরে গৃহবন্দী করে রাখে। বিষয়টি যেন আমার বাবার বাড়ির কেউ জানতে না পারি সেজন্য আমার মোবাইল ফোনটিও বিক্রি করে দেয় সে। পরে অনেক কৌশল করে আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে বিষয়টি আমার বাবাকে জানাই।

এ বিষয়ে আদিতমারী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোক্তারুল ইসলাম বলেন,অভিযোগ পাওয়ার পরপরই ঘটনাস্থলে অভিযান চালিয়ে গৃহবধূ নুরীকে উদ্ধার এবং তার মাদকাসক্ত স্বামীকে গ্রেফতার করা হয়েছে।


এই বিভাগের আরও খবর....

Google Sponsored Ads

এক ক্লিকে বিভাগের খবর