বুধবার, ২৭ অক্টোবর ২০২১, ০১:৩২ অপরাহ্ন
নোটিশঃ
চট্টগ্রাম বিভাগে বিভিন্ন জেলায় প্রতিনিধি আবশ্যক। যারা ইচ্ছুক, তারা আমাদের নিউজ পোর্টালে যোগাযোগ করবেন। যোগাযোগ 01715247336.

পদের জন্য নয়,নতুন কিনতে পুরাতন গাড়ি বিক্রয় করেছি–দেওয়ান মেহেদী মাসুদ মঞ্জ

স্টাফ রিপোর্টারঃ / ১০৭ শেয়ার হয়েছে
নিউজ আপঃ শনিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ১:০২ অপরাহ্ন

পদের জন্য উপহার নয়, নতুন গাড়ি কেনার জন্যই আমার পুরাতন গাড়িটি বিক্রয় করেছি বলে জানান সাভার উপজেলা আ.লীগের যুগ্ম-সাধারন সম্পাদক ও আশুলিয়া থানা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক কমিটির সদস্য মেহেদী মাসুদ মঞ্জু।

এসময় তিনি আরও বলেন, সাভারে কয়েকদিন যাবৎ একটি কুচক্রী মহলের ষড়যন্ত্রের শিকার হচ্ছেন আমারই ছোট ভাই আশুলিয়া থানা যুবলীগের সভাপতি প্রার্থী রাজু দেওয়ান। কেন্দ্রীয় যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য আলহাজ্ব আবু আহমেদ নাসিম পাভেল যিনি দীর্ঘদিন সততার সঙ্গে রাজনীতি করে আসছেন। হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানসহ পরিবারের, দলীয় রাজনৈতিক এবং অন্যান্য দিবসগুলো সবসময় সফলভাবে যথাযথ মর্যাদায় পালন করে আসছেন।এরই ধারাবাহিকতায় তার নিজস্ব বাসভবনে নেতাকর্মীদের যাতায়াত থাকে সবসময়।

কেন্দ্রীয় যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য হওয়ার পর থেকে অনেকেই সুপারিশ নিয়ে জান দলের ত্যাগী কর্মী হিসেবে। আর এই জন্য যাতায়াত অনেকের। এদিকে আশুলিয়া থানা যুবলীগের সভাপতি প্রার্থী রাজু দেওয়ান বিভিন্ন সভা সমাবেশে অংশগ্রহণ করতে এই কেন্দ্রীয় নেতার বাসায় যেতেন। তারই সুবাদে রাজু দেওয়ানের বড় ভাই দেওয়ান মেহেদী মাসুদ মঞ্জুও যাতায়াত করতেন।

এদিকে দীর্ঘদিন তিনি তার ব্যবহৃত গাড়িটি বিক্রি করার চেষ্টা করছিলেন নতুন গাড়ি কেনার জন্য। এই প্রতিবেদকের এক প্রশ্নের জবাবে মঞ্জু বলেন, গাড়িটি মোবিল খাচ্ছিলো তাই বিক্রি করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম। গাড়ি বিক্রি করবো শুনে পাভেল ভাইয়ের ছেলের পছন্দ হওয়ায় তিনি গাড়িটি কিনতে চান, যদিও সমস্যার কথা বলা সত্বেও গাড়িটি পছন্দ করে।

এসময় তিনি আরও বলেন, আমার ছোট ভাই রাজু এর থেকে ভালো গাড়ি ব্যবহার করে, যদি পাভেল ভাই উপহার চাইতেন তবে আরও ভালো গাড়ি নিতে পারতেন। পাভেল ভাই সৎ ও নিষ্ঠাবান নেতা বলেই প্রেসিডিয়াম সদস্য পদ পেয়েছেন। তার রাজনীতিতে কোন কলঙ্ক নেই। দীর্ঘদিন তার রাজনীতি দেখে আসছি। তাকে ঘিরে অপপ্রচার করা হচ্ছে যা কোনভাবেই মেনে নেওয়া যায়না। আমি আমার গাড়ি অনেক আগে থেকে বিক্রি করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম। আর গাড়িটা যে বিক্রি করেছি তারও কাগজপত্র আছে । গাড়ী বিক্রির আইনানুগ দলিল অনুযায়ী, যাহা ১০০ টাকা মূল্যের ৩টি স্ট্যাম,যার নং যথাক্রমে ৯৪৩২৮৪১,৯৪৩২৮৪২ ও ৯৪৩২৮৪৩ মারফতে উক্ত, পুরাতন HARD JEEP MITSUBISHI গাড়ীটি বিক্রির চুক্তি পত্রে ক্রয় করা হয়। সর্বমোট ক্রয় মূল্য ৩৮০০০০০/আটত্রিশ লক্ষ টাকার মধ্যে ৫/৭/২০২১ তারিখে নগত ১৫০০০০০ পনের লক্ষ টাকা ও ১৮/৮/২০২১তারিখে নগত ১৩০০০০০ তের লক্ষ টাকা প্রদান করা হয় ‌। বাকি ১০০০০০ দশ লক্ষ টাকা চেকের মাধ্যমে ডাচ বাংলা ব্যাংকের জিরাবো শাখার ,হিসাব নং245.110.638 নং একাউন্টে পরিশোধ করতে উল্লেখ করা থাকে। পদের জন্য উপহার চাইলে আমার ছোট ভাইয়ের কয়েক টা গাড়ি আছে সেখান থেকে চাইতে পারতো,আমার গাড়ি কেন। এসময় দুঃখ প্রকাশ করে তিনি বলেন, পাভেল ভাই সম্মানিত ব্যক্তি।তাকে জড়িয়ে এ ধরণের বিষয় নিয়ে, না জেনে সংবাদ প্রকাশ করা থেকে বিরত থাকতে আহবান জানান। তিনি এধরণের সংবাদ প্রকাশ করাকে একটি কুচক্রী মহলের ষড়যন্ত্র বলে উল্লেখ করে সতর্ক থাকতে আহবান করেন।


এই বিভাগের আরও খবর....

Address

87 Middle Rajashon, Savar,Dhaka-1340

+8802-7746644, +8801774945450

EMAIL newsalltime27@gmail.com

এক ক্লিকে বিভাগের খবর